৬৭ বসন্তে রুনা লায়লা

0
24

বিনোদন ডেস্ক
উপমহাদেশের কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী রুনা লায়লা। কেরিয়ারে বাংলা, হিন্দি, উর্দু মিলিয়ে মোট ১৮টি ভাষায় যিনি ১০ হাজারেরও বেশি গান গেয়েছেন। বাংলা সিনেমায় গান গেয়ে শ্রেষ্ঠ নারী কণ্ঠশিল্পী বিভাগে সাত বার জিতেছেন ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার’। সংগীতে অসামান্য অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকারের কাছ থেকে সর্বোচ্চ সম্মাননা ‘স্বাধীনতা পদক’ও পেয়েছেন।

আজ ১৭ নভেম্বর আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন জীবন্ত কিংবদন্তি রুনা লায়লার ৬৭তম জন্মদিন। ১৯৫২ সালের এই দিনে তিনি সিলেটে জন্মগ্রহণ করেন। গত বছর ৬৬তম জন্মদিন তিনি স্বামী চিত্রনায়ক আলমগীরকে নিয়ে কলকাতায় উদযাপন করেন। তবে এবার দেশেই কাটাবেন এ বিশেষ দিনটি। ৫৪ বছরের সংগীতজীবনে চারবার তিনি দেশের বাইরে জন্মদিন পালন করেছেন। এর মধ্যে ২০১৫ সালে লন্ডনে আর তিনবার ভারতে।

রুনা লায়লা ১৯৬৬ সালে উর্দু ভাষার ‘হাম দোনো’ ছবির ‘উনকি নাজরোঁ সে মোহাব্বত কা জো পয়গম মিলা’ গানটি দিয়ে সংগীতাঙ্গনে আলোচনায় আসেন। ষাটের দশকে তিনি নিয়মিত পাকিস্তান টেলিভিশনে গান গাইতেন। বাংলা চলচ্চিত্রে গান গাওয়া শুরু করেন স্বাধীনতার পর। অসংখ্য বাংলা ছবিতে তিনি কণ্ঠ দিয়েছেন। গানের জন্য তিনি বাংলাদেশের পাশাপাশি ভারত, পাকিস্তানেও তুমুল জনপ্রিয়।

জীবনের ৬৬টি বসন্ত পেরিয়েও রুনা লায়লার গলার তেজ এখনও আগের মতোই আছে। পাশাপাশি গান বিষয়ক বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় তাকে বিচারকের ভূমিকায়ও দেখা যায়। গান সম্পর্কে এই শিল্পী বলেন, ‘যতদিন নিজে মনে করবো যে, এখনো গাইতে পারছি, সুর নড়ছে না, বেসুরো হচ্ছে না, কণ্ঠ কাঁপছে না, ততদিন গান গাইবো। যখন মনে হবে এখন আর হচ্ছে না, তখন গান ছেড়ে দেবো।’

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here