মিঠুন চক্রবর্তীর ছেলের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা

0
55

বিনোদন ডেস্ক
উপমহাদেশের তুমুল জনপ্রিয় অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী। বলিউডে তিনি ‘ডিস্কো ড্যান্সার’ হিসেবে খ্যাত। অসংখ্য সুপারহিট ও কালজয়ী ছবি দিয়ে তিনি হিন্দি সিনেমায় সুপারস্টার তকমা পেয়েছেন। ভারতীয় বাংলা সিনেমাতেও তিনি উজ্জ্বল এক নক্ষত্র।

যেমন তিনি আলো ছড়িয়েছেন বিকল্প ধারার ছবিতে তেমনি মশলাদার সিনেমাতেও মিঠুন কলকাতার সিনেমায় এনেছেন ব্যাপক পরিবর্তন। তার হাত ধরে বদলে গিয়েছিলো সেখানকার অ্যাকশনধর্মী সিনেমার আমেজ। বিশেষ করে ‘ফাটাকেষ্ট’ সিরিজ দিয়ে তিনি বাংলার দর্শকের কাছে সুপারহিরো হয়ে উঠেছেন।

কিন্তু সাম্প্রতিক সময়টা তার একদমই ভালো যাচ্ছে না। রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও শারীরিকভাবে বিপর্যস্ত দিন কাটাচ্ছেন। এবার পারিবারিকভাবেও পড়লেন বিব্রতকর পরিস্থিতিতে। তার ছেলে মহাক্ষয় ওরফে মিমোর বিরুদ্ধে উঠেছে ধর্ষণের অভিযোগ।

সেইসঙ্গে জানা গেছে মিমোর নামে প্রতারণা ও জোর করে গর্ভপাতের অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করার খবরও।

ভারতীয় গণমাধ্যমের বরাতে জানা গেল, মিমোর বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছেন এক নারী। ওই নির্যাতিতার লিখিত বয়ানে অভিযোগ করা হয়েছে, ২০১৫ সাল থেকে সম্পর্কে ছিলেন তিনি মিমোর সঙ্গে। এই সময়েই মিমো নির্যাতিতাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হয়েছেন। তাকে গর্ভবতী করেছেন। কিন্তু এখন বিয়ে করতে চাইছেন না।

পুলিশের কাছে আরও অভিযোগ করা হয়েছে, ২০১৫ সালে মিমো তাকে বাড়িতে ডেকে পানীয়তে মাদক মিশিয়ে অনুমতি ছাড়াই তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করেছিলেন। এরপরই বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রায় ৪ বছর লাগাতার ধর্ষণ করেছেন। যা মানসিক ভাবে বিধ্বস্ত করেছে নির্যাতিতাকে।

পরে ওই নারী গর্ভবতী হলে মিমো বাধ্য করেছিলেন তাকে গর্ভপাত করতে। এজন্য বেশ কিছু ওষুধও খাইয়েছিলেন এমনই গুরুতর অভিযোগ করা হয়েছে।

নির্যাতিতা আরও অভিযোগ করেছেন যে, মিমো ও তার মা যোগিতাবালি ভয় দেখিয়েছিলেন, বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার জন্য। মুখ খুললে রোহিণীর ক্ষতি হবে বলে হুমকি দিয়েছিলেন তারা।

তাই মিমোর সঙ্গে তার মায়ের বিরুদ্ধেও অভিযোগ এনেছেন ওই নারী।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here